1. [email protected] : editor : Meraj Gazi
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : zeus :
রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৫:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজবাড়ীতে বড় পর্দায় দেখানো হবে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বর্নাঢ্য আয়োজনে জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বিদেশী পিস্তলসহ সন্ত্রাসী দুল্লা গ্রেফতার গ্লোবাল টেলিভিশন ভবনে সাংবাদিকদের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানব বন্ধন বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত রাজবাড়ী সদরে ১০ কৃষক পেলো পাওয়ার টিলার চালিত সিডার সদর উপজেলা মাসিক আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও রাজবাড়ী ইসকন মন্দিরের প্রবেশ পথ খুলে দেওয়ার দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণে আহতদের পাশে সংগীত শিল্পী ফারদিন পাংশায় স্বপরিবারে হত্যার উদ্যেশ্যে গভীর রতে বসত ঘরে অগ্নিসংযোগ

পৌনে দুই কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে বালুর ব্যবসা জমজমাট

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : রবিবার, ২১ জুলাই, ২০১৯
  • ১৭৭ পঠিত
স্টাফ রিপোর্টার, রাজবাড়ী টুডে: রাজবাড়ীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল দখল করে চলছে বালুল ব্যবসা। গত এক সাপ্তাহ ধরে টার্মিনাল দখল করে বালুর ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বলে প্রভাশালীরা অভিযোহ স্থানীয়দের। টার্মিনালের সামনের অংশে ছোট বড় ৪টি বালুর চাতাল গড়ে উঠেছে। শুধু বাস টার্মিনালই নয় আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশেও গড়ে উঠেছে এমন আরো কয়েকটি বালুল চাতাল।
 
যার ফলে টার্মিনালের আসে পাশে থাকা ছোট ছোট ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দারা পরেছেন চরম দুর্ভোগে। ভোর থেকে শরু করে সারা রাত চলে বালু লোড আনলোড এর কার্যক্রম।
 
স্থানীয়রা বলেন, বাস টার্মিনালে থাকবে বাস কিন্তু এই টার্মিনাল তৈরী হওয়ার পর থেকে বাস থাকে না। শুধু ময়লা আর আবর্জনা ও কিছু বাস ট্রাক মেরামত করার জন্য রাখা হয়। তবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে টার্মিনালটি চালু হয়েছিল। কিন্তু যেই দলীয় সরকার এলা তখনই আবার সেই পুরনো জীবনে ফিরে এলো টার্মিনাল। আবার এই সুযোগে এলাকার কিছু প্রভাবশালীরা টার্মিনাল দখল করে বালুর চাতাল তৈরী করে বালু ব্যবসা করে আসছে। তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার কেউ নেই আমারা সাধারণ মানুষ তাই নিরবেই দুর্ভোগ মেনে নিয়েই পথ চলি।
 
পৌনে দুই কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত রাজবাড়ী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালটি দুই যুগেও পূর্ণাঙ্গ ভাবে চালু হয়নি। এ নিয়ে রাজবাড়ী পৌর কর্তৃপক্ষ আর বাসমালিক গ্রুপ একে অপরকে দুষলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। অন্যদিকে সেখানকার ব্যবসায়ীদের চলছে দুর্দিন। আর রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার।
 
শ্রীপুর এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ শাহিন খান বলেন, রাজবাড়ী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালটি করা হয়েছে বাস চালাচল করার জন্য কিন্তু সেখানে দীর্ঘদিন এখানে অবৈধ ভাবে বালুর ব্যবসার করার কারনে পরিবেশ ও টার্মিনালের সৌন্দর্য নষ্ট করা হচ্ছে। তাই যাতে অতিস্তর আইনগত ব্যবস্থা নিবে প্রশাসন এমনটাই প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।
 
টার্মিনালে গ্যারেজ এর এক মিস্তিরি বলে, ধুলাবালিতে অনেক সমস্যা হয় আমাদের যে খানে থাকবে বাস সে খানে এখন বালু। বাস টার্মিনাল হয়েগেছে এখন বালুর চাতাল।
 
ফলে টার্মিনালটি প্রায় ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে গেছে মূল্যবান আসবাবপত্র ও সরঞ্জামাদি। টার্মিনালের কয়েকটি কক্ষে বসে মাদকের আড্ডাও চলে। আবার নতুন করে প্রভাবশালীরা শুরু করেছে বালুর ব্যবসা।
 
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আগে রাজবাড়ী বাসস্ট্যান্ড ছিল শহরের বড়পুলে। পরে ১৯৯২-৯৩ অর্থ বছরে ১ কোটি ৭৪ লাখ টাকা ব্যয়ে রাজবাড়ী জেলা পরিষদ রাজবাড়ী শহর থেকে আড়াই কিলোমিটার দূরে পৌরসভার শ্রীপুরে ৫নং ওয়ার্ডে বাস টার্মিনালটি নির্মাণ করে। এরপর ২০০০ সালে এটি পৌরসভার কাছে হস্তান্তর করে। তবে নির্মাণের পর থেকে এটি বাস টার্মিনাল হিসেবে আর ব্যবহার হয়নি। ওয়ান ইলেভেনের সময় ২০০৭ সালে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে টার্মিনালটি চালু করা হয়েছিল। ওই সময় শহরের মুরগি ফার্মে আরেকটি বাস স্টপেজ গড়ে ওঠে। সে সময় যাত্রীদের সুবিধার্থে অটোরিকশার টাউন সার্ভিস চালু করা হয়েছিল। সেটি জনপ্রিয়তাও পেয়েছিল। সেই টাউন সার্ভিস এখনও চালু আছে, তবে চালু নেই টার্মিনাল।
 
এবিষয়ে রাজবাড়ী পৌর ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কাজী মাহাতাব উদ্দিন তৌহিদ জানান, বিভিন্ন লোকজন টার্মিনাল দখল করে বাস, ট্রাক মালিক পক্ষ টায়ার, পার্সপত্র রুমের মধ্যে রেখে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। আবার নতুন করে টার্মিনালে ইট, বালুর ব্যবসা করছে কিছু প্রভাবশালীরা টার্মিনালের যায়গা দখল করে। এ বিষয়ে আমি অবগত আছি পাশাপাশি পরিষদের মিটিং এ আমি মেয়র সাহেবকে বলেছি। কিন্তু কার্যকারী কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।
 
এবিষয়ে রাজবাড়ী পৌরসভার প্যানেল অব মেয়র নির্মল কৃষ্ণ চক্রবর্তী শেখর বলেন, রাজবাড়ীর পৌর র কর্মচারীদের কর্মবিরতী চলছে। এমন সময় বাসটার্মিনালে কিছু অবৈধ ব্যবসায়ী বালুর স্তউপ করে বালু ব্যবসা করছে। মেয়র সাহেব ঢাকায় আছে তিনি বলেছেন কর্মচারীদের কর্মবিরতী শেষ হলে অবৈধ বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলশাদ বেগম বলেন, রাজবাড়ী কেন্দ্রী বাস টার্মিনালে বালুর ব্যবসা করছে এ বিষয়ে কেউ এ পর্যন্ত আমাদের কাছে কোন অভিযোগ করেনি। যদিও টার্মিনালটি পৌর সভার ব্যবস্থাপনায় চলছে এ বিষয়ে আমি পৌর মেয়রের সাথে কথা বলবো। যদি কেউ অবৈধ ভাবে কোন কিছু করে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিব।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই জাতীয় আরো খবর
July 2022
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930  
© All rights reserved © 2013 Todaybangla24
Theme Customized BY LatestNews